myUpchar प्लस+ सदस्य बनें और करें पूरे परिवार के स्वास्थ्य खर्च पर भारी बचत,केवल Rs 99 में -

আপনারা হয়তো ইতিমধ্যেই জানেন, ‘‘ঋগ্বেদ’’-এর পাতায় পাওয়া যায় অ্যালোভেরার অভাবনীয় ক্ষমতার কথা।

বিশ্বের যে কোনও প্রান্তে প্রায় প্রতিটি বাড়িতে ঢুকে পড়েছে অ্যালো ভেরা কারণ, সৌন্দর্যের চাবিকাঠি হিসাবে এর প্রয়োজনীয়তার জন্য এটিকে বলা যেতে পারে সুপারফুড, এবং ‘‘রহস্যময় গুল্ম’’। ভারতে এটি ‘‘ঘৃতকুমারী’’ নামেও সমধিক পরিচিত। আয়ুর্বেদ গবেষকদের মতে, নারীদের ঋতুচক্রকে নিয়ন্ত্রণ করার ক্ষমতা এবং মসৃণ ত্বকের উপকারিতার জন্য গুল্মটির বয়স কখনও বাড়ে না বলে যে ইঙ্গিত পাওয়া যায় সেই কারণে এটিকে সংস্কৃতে ‘‘কুমারী’’ বলা হয়। আয়ুর্বেদই হোক বা পশ্চিমী চিকিৎসা, প্রতিটি ঐতিহ্যশালী চিকিৎসা শাস্ত্রে এই গুল্মের একটি বিশেষ ভূমিকা আছে।

ঘৃতকুমারী একটি সরস উদ্ভিদ (নরম এবং রসালো)।এর পুরু এবং মোটা পাতা এবং কাণ্ড মূলত ব্যবহার হয় জল সঞ্চয় করে রাখ্যর জন্য। আয়ুর্বেদ শাস্ত্রে অ্যালোভেরাকে মূলত বাত এবং যক্কৃতের উপসর্গের উপশমের জন্য বিশেষভাবে উল্লেখ করা হয়েছে। প্রখ্যাত প্রকৃতিবিদ প্লাইনি দ্য এল্ডার জানিয়েছেন, কুষ্ঠের ক্ষত নিরাময়েও অ্যালো ভেরা ব্যবহার করা যেতে পারে। এই উদ্ভিদ শুধুমাত্র ভারতীয় উপমহাদেশেই জনপ্রিয় ছিল না, গবেষকেরা প্রাচীন মিশরীয় দলিলেও এর বিশদ বিবরণ পেয়েছেন। এমনকি, বলা হয়ে থাকে, মিশরীয়রা এটিকে ‘‘অমৃত উদ্ভিদ’’ বলে আখ্যা দিয়েছিল। মিশরের ইতিহাস প্রসিদ্ধ রানি ক্লিওপেট্রা আপন সৌন্দর্যের বিকাশে এটির সাহায্য নিতেন বলেও জানা যায়!    

আপনি কি জানেন?

ঘৃতকুমারী নামটি এসেছি আরবীয় শব্দ ‘‘অলোহে’’ থেকে যার অর্থ ‘‘তিক্ত পদার্থের ঔজ্জ্বল্য’’ এবং ‘‘ভেরা’’ একটি লাতিন শব্দ যার অর্থ ‘‘সত্য’’ বা খাঁটি।

ঘৃতকুমারী সম্পর্কে কিছু প্রাথমিক তথ্য:

  • বৈজ্ঞানিক নাম: অ্যালো বার্বাডেনসিস মিলার
  • পরিবার: অ্যাসপোডেলাসিয়া
  • সাধারণ নাম: অ্যালো ভারা, বার্ন প্লান্ট, ঘি কুমারী, কুমারী
  • সংস্কৃত নাম :   ঘৃতকুমারী      
  • ব্যবহৃত অংশ:  পাতা
  • আদিতে উদ্ভূত এবং ভৌগৌলিক বণ্টন: অ্যালো ভেরা আদিতে আফ্রিকায় উৎপন্ন হত, পরে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে আদি উৎপত্তিস্থল ছাড়িয়ে মধ্য প্রাচ্য এবং ভারত-সহ বিশ্বের অধিকাংশ ঊষ্ণ এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। রাজস্থান, অন্ধ্র প্রদেশ, তামিলনাড়ু, মহারাষ্ট্র এবং গুজরাটে এর দেখা মেলে।
  • এনার্জেটিক: শীতল      
  1. ঘৃতকুমারীর ডোজ - Aloe vera dosage in Bengali
  2. স্বাস্থ্যের জন্য ঘৃতকুমারী উপকারিতা - Health benefits of Aloe Vera in Bengali
  3. ঘৃতকুমারী উদ্ভিদ এবং কীভাবে তা ব্যবহার করা হয় - Aloe vera plant and how it is used in Bengali
  4. ঘৃতকুমারীর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া - Side effects of aloe vera in Bengali

নিশেষ কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া  (যাঁরা স্বাভাবিকভাবে এই উদ্ভিদে অ্যালার্জিপ্রবণ তাঁরা ব্যতিরেকে) ছাড়া অ্যালো জেল সাধারণভাবে ত্বকের ওপরে লাগানো যেতে পারে। ওই পণ্যে কতটা পরিমাণ অ্যালো ভেরা আছে তার ওপর ত্বকের ক্রিম, লোশন, বেভারেজ-এর পরিমাণ এবং ডোজ নির্ভর কিরে। সাধারণ মাপকাঠি অনুযায়ী খালি পেটে এক আউন্স বা দুই টেবিল চামচ পরিমাণ অ্যালো জুস নিরাপদ বলে ধরে নেওয়া হয়। কিন্তু ডোজের ওপর বয়স, লিঙ্গ এবং অন্যান্য উপসর্গ নির্ভর করে। কাজেই আপনার খাদ্যাভ্যাসে ঘৃতকুমারী যুক্ত করা বা ত্বকের যত্নের ক্ষেত্রে তা ব্যবহার করার আগে রেজিস্ট্রিকৃত আয়ুর্বেদ চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করুন।   

ঘৃতকুমারী সাধারণত পোড়া বা ত্বকের অন্যান্য সমস্যার জন্য ব্যবহার করা হয়। আপনাদের অনেকেই হয়তো জানেন যে অ্যালো ভেরা হচ্ছে সমস্ত সম্ভাবনার ক্ষেত্রে এক ‘‘ক্ষুদ্র বিস্ময়’’। অ্যালো ভেরার কিছু ব্যবহার এবং কার্যকারিতা নিয়ে আলোচনা করা যাক।

  • বয়স বাড়তে দেয় না:  বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ত্বকে যেসব লক্ষণ দেখা দেয় তা রুখতে বিভিন্ন ক্রিম এবং লোশনে অ্যালো জেল ব্যবহার করা হয়। এটি আপনার ত্বক তৈলাক্ত রাখে এবং ত্বক নতুন করে জন্মাতে সাহায্য করে, তার ফলে বয়স বাড়ার যে সব প্রাথমিক লক্ষণ, যেমন ত্বক কুঁচকে যাওয়া বা ত্বকের ওপর রেখার দাগ পড়ে যাওয়া, সেসব আটকায়।     
  • ক্ষত নিরাময়ে অনুঘটক: সমস্ত রকম ক্ষতের ক্ষেত্রে অ্যালো ভেরা সর্বাপেক্ষা ভাল কাজ করে। একাধিক সমীক্ষায় প্রমাণিত, ত্বকের জেল্লা ফেরানো, কাটা, পোড়া, রোদ্দুরের তাপে পুড়ে যাওয়া বা বিকিরণ থেকে ক্ষতির হাত থেকে ঘৃতকুমারী রক্ষা করে।  
  • পেটের সমস্যার সমাধান: GERD-এর মত পাকস্থলির বিভিন্ন সমস্যা, পেট ফাঁপা এবং কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যায় অ্যালো জেল এবং ল্যাটেক্স উপকারী বলে দাবি করা হয়ে থাকে। তবে নিয়ন্ত্রণহীন বাবহারে ডায়রিয়া হওয়ার সম্ভাবনা থেকে যায়।
  • মুখের স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী: যে ব্যক্টিরিয়া থেকে প্লাক তৈরি হয় তা বিনাশ করতে এবং জিনজিভাইটিস প্রতিরোধে অ্যালো জেল কার্যকরী ভূমিকা নেয়। মুখের কোনও ক্ষতিসাধন না করে মুখের মধ্যে আলসার বা ঘা প্রতিরোধে অ্যালো জেল ব্যবহার উপকারী বলে দেখা গিয়েছে।  
  • স্বাভাবিক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টিব্যক্টিরিয়াল: ব্যাক্টিরিয়া সংক্রমণ এবং ফ্রি র‌্যাডিক্যাল ক্ষতি রোধ করে। আপনার স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী এবং বয়ঃবৃদ্ধি ও প্রত্যঙ্গের কার্যপ্রক্রিয়া উন্নয়নে এটি সাহায্য করে।
  • রক্তে শর্করার মাত্রা কমায়: অ্যালো জেল হাইপোগ্লাইসেমিক এজেন্ট (রক্তে শর্করার মাত্রা কমায়) হিসাবে কাজ করে কিনা তা দেখবার জন্য পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে বিভিন্ন সমীক্ষা চালানো হয়েছে এবং অধিকাংশ সমীক্ষায় ডায়বিটিসের ক্ষেত্রে এর কার্যকারিতা প্রমাণিত হয়েছে। ভেষজ হিসাবে এটি নিরাপদ কিনা বা এর কত ডোজ হওয়া উচিত সে ব্যাপারে অন্তিম পরীক্ষা চালানো হচ্ছে। 
  • দীর্ঘ এবং উজ্জ্বল কেশ: ঘৃতকুমারী আপনার করোটি আর্দ্র রাখে এবং পুষ্টি জোগায়। এটি আপনার চুল বিন্যস্ত রাখে এবং মাথার ত্বকের pH মাত্রায় সমতা রাখে। সব কিছু মিলিয়ে এই সব গুণের কারণে আপনার মাথার চুলের বৃদ্ধি হয় এবং চুল পেকে যাওয়া প্রতিরোধ করে।     
  • কোলেস্টেরোল কমায়: নিউট্রিশনাল সায়েন্স অ্যান্ড ভাইটামিনোলজি পত্রিকায় প্রকাশিত গবেষণা পত্রে দেখা যাচ্ছে, অ্যালো জেল যক্কৃতে  কোলেস্টেরোল উৎপাদন 30%. কমায়। প্লাক এবং অ্যাথেরোস্ক্লেরোসিস কমায়।
  • ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়: ভাইটামিন এবং জিংকের মত অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট-এ ভরপুর থাকে অ্যালো জেল, যা ক্যান্সার কোষ বৃদ্ধি আটকায় বলে জানানো হয়েছে। এটি টিউমার বৃদ্ধিও প্রতিরোধ করে। এখনও ক্যান্সার প্রতিরোধে এই উদ্ভিদের ভূমিকা সম্পর্কে অবশ্য সমীক্ষা চালানো হচ্ছে।  
  1. ত্বকের উপকারের জন্য ঘৃতকুমারী জেল - Aloe vera gel benefits for skin in Bengali
  2. পাকস্থলীতে সংক্রমণ এবং কোষ্ঠ্যকাঠিন্যে ঘৃতকুমারী - Aloe vera for stomach infections and constipation in Bengali
  3. স্বাস্থ্যকর মাড়ি এবং দাঁতের জন্য ঘৃতকুমারী - Aloe vera for healthy gums and teeth in Bengali
  4. ঘৃতকুমারী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টিব্যক্টিরিয়াল - Aloe vera as an antioxidant and antibacterial in Bengali
  5. ডায়বিটিসের জন্য ঘৃতকুমারী - Aloe vera for diabetes in Bengali
  6. চুলের জন্য ঘৃতকুমারী - Aloe vera benefits for hair in Bengali
  7. অ্যান্টি-টিউমার এজেন্ট হিসাবে ঘৃতকুমারীর ব্যবহার - Aloe vera as an anti-tumor agent in Bengali
  8. কোলেস্টরেল কমাতে ঘৃতকুমারীর - Aloe vera for lowering cholesterol in Bengali

ত্বকের উপকারের জন্য ঘৃতকুমারী জেল - Aloe vera gel benefits for skin in Bengali

বিভিন্ন রকম ত্বকের জন্য বাজারে বহু ঘৃতকুমারী ক্রিম এবং অ্যান্টি-এজিং লোশন পাওয়া যায়। কিন্তু আপনাকে বিশেষ করে সতর্ক করে দেওয়া হচ্ছে, ওইগুলির মধ্যে কোনটি প্রাকৃতিক গুণসম্পন্ন এবং আসল তা যাচাই করে নেবেন। যদি আপনি স্বাস্থ্যকর ত্বকের জন্য সহজে বিশ্বাসযোগ্য কোনও প্রতিকারের খোঁজ করছেন তাহলে প্রাকৃতিক ঘৃতকুমারী জেল ব্যবহার করাই শ্রেয়। প্রাকৃতিক অ্যালো ভেরা জেল-এর মধ্যে দামি ক্রিমের সমস্ত গুণগুলি থাকে কিন্তু তার কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকে না। সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, আপনার খাদ্যাভ্যাসে অ্যালো ভেরা জেল যোগ করা হলে শরীরে স্ট্রেচ মার্ক (দাগ) এবং বয়সের আগেই বৃদ্ধ হয়ে যাওয়ার অন্যান্য প্রবণতা কমে। যখন ত্বকের ওপর লাগানো হয় তখন ত্বককে স্বাভাবিকভাবে আর্দ্র করে এবং ত্বককে তাজা করে। ঘৃতকুমারী প্রাথমিকভাবে ত্বকে জলের যোগান ঘটায় এবং মসৃণ ত্বক উজ্জ্বল লাগে, যা প্রতিটি মানুষেরই কাম্য। অ্যালো ভেরার নিয়মিত ব্যবহার ত্বককে আর্দ্র রাখে এবং ত্বকের কোষের বৃদ্ধি ঘটায় এবং দ্রুত সংযুক্তিকরণ ঘটায়, কাজেই ত্বকের স্থিতিস্থাপকতা বাড়ে।

অ্যান্টি-এজিং প্রক্রিয়া ছাড়া আপনার ত্বকের জন্য ঘৃতকুমারী জেল-এর একাধিক উপকারিতা আছে।      

  • দ্রুত ক্ষত নিরাময়: ঘরোয়া চিকিৎসায় ক্ষত নিরাময়ে অ্যালো ভেরাকে অন্যতম উৎকৃষ্ট ভেষজ বলে গণ্য করা হয়। বিশ্ব জুড়ে বিস্তৃত গবেষণা লব্ধ ফলে পাওয়া গিয়েছে, জেল-এর মধ্যে এমন কিছু উপাদান (কম্পোনেন্ট- বৃদ্ধির হরমোন)) আছে যা ফাইব্রোব্লাস্টের (ত্বকের কোষ, যা নতুন ত্বকের জন্ম দিতে এবং আঘাত নিরাময়ে সাহায্য করে) সঙ্গে যুক্ত হয় এবং ক্ষতস্থানের পাশে ত্বকের কোষ জন্মাতে সাহায্য করে। মুখ দিয়ে খাওয়াই হোক বা ত্বকের ওপর প্রলেপ, উভয় ক্ষেত্রেই নিরাময়ের ক্ষমতা একইরকম উপকারী।      
  • পোড়ার ঘা নিরাময়ে কার্যকরী: আয়ুর্বেদ চিকিৎসকেরা প্রথম ডিগ্রি এবং দ্বিতীয় ডিগ্রি পোড়ার ক্ষেত্রে ঘৃতকুমারী জেল ব্যবহারের পরামর্শ দিয়ে থাকেন। সাধারণত জেল সরাসরি ক্ষতস্থানে লাগানো হয়। একটি সমীক্ষায় দাবি করা হয়েছে, যে কোনওরকমের পুড়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে নিরাময়ের জন্য ভেসলিন গেজের চেয়ে ঘৃতকুমারী বেশি কার্যকরী। ওই সমীক্ষা থেকে এটাও জানা গিয়েছে যে, পোড়ার ঘায়ে ভেসলিন গেজ ব্যবহার করলে যেখানে নিরাময়ে 18-20 দিন লাগে সেখানে অ্যালো ভেরার ক্ষেত্রে তা আনুমানিক 12  দিন।    
  • সূর্যের তাপে পুড়ে যাওয়া: আপনি কি জানেন, সূর্যের তাপে ত্বক তামাটে হয়ে গেলে অ্যালো ভেরা একটি পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াহীন স্বাভাবিক প্রতিকার? যদি ত্বক তামাটে হয়ে যায় তাহলে ঘৃতকুমারী হচ্ছে এমন একটি ঘরোয়া প্রতিকার যার কথা সর্বাগ্রে মনে আসে। ত্বকের নিরাময়ের ক্ষেত্রে এর কার্যকারিতার কথা আগেই বলা হয়েছে, তাছাড়া অ্যালো জেল ত্বকের ওপর লাগালে একটি আরামের প্রলেপ পড়ে, এবং তার কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকে না। সুতরাং, এর পরে আপনি যদি সূর্যের নিচে থাকার দরুণ দেখেন ত্বকে তামাটে ভাব এসেছে তাহলে দ্রুত আরামের জন্য ওই স্থানের ওপর অ্যালো জেল ঘষে নেবেন।
  • বিকিরণের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া কমায়: রোগীদের ওপর সমীক্ষা চালিয়ে দেখা গিয়েছে, কেমোথেরাপি রোগীদের ক্ষেত্রে বিকিরণজনিত কারণে পুড়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটলে অ্যালো ভেরা কার্যকরীভাবে ব্যবহার করা যেতে পারে। অতিরিক্ত গবেষণায় এও পাওয়া গিয়েছে যে, পোড়ার ক্ষত নিরাময়ের ক্ষেত্রে অ্যালো জেল ভিত্তিক ক্রিমের চেয়ে অ্যালো জেল বেশি কার্যকরী।   

পাকস্থলীতে সংক্রমণ এবং কোষ্ঠ্যকাঠিন্যে ঘৃতকুমারী - Aloe vera for stomach infections and constipation in Bengali

আপনার কত ঘন ঘন পেটের সমস্যা হয়? আপনার কি বুকজ্বালার অনুভূতিও হয়? এগুলি কোনও সংক্রমণের উপসর্গ হতে পারে যা পেট ফাঁপা বা GERD -এর (গ্যাস্ট্রোইসোফেগাল রিফ্লাক্স রোগ) কারণে হতে পারে। একটি সাম্প্রতিক সমীক্ষা করে দেখা হয়েছিল ইনফ্লেমেটরি বাওয়েল ডিজিজের (IBS) চিকিৎসার ক্ষেত্রে ঘৃতকুমারী কতটা কার্যকরী এবং সমীক্ষার ফলে দেখা যায় পেট ফাঁপা বা ফোলার মত রোগের উপশমে অ্যালো ভেরার প্রয়োগ খুব সাহায্য করে। অতিরিক্তভাবে এও বলা হয়ে থাকে কোষ্ঠাকাঠিন্যের ক্ষেত্রে অ্যালো ভেরা খেলে কাজ হয় কারণ ঘৃতকুমারী একটি উৎকৃষ্ট জোলাপ। তবে অ্যালো ভেরা রস অথবা ল্যাটেক্স খাওয়ার আগে অবশ্যই চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করে নেবেন কারণ দেখা গিয়েছে প্রয়োজনীয় অ্যালো জুসের চেয়ে অতিরিক্ত পরিমাণে গ্রহণের ফলে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে রোগী।          

স্বাস্থ্যকর মাড়ি এবং দাঁতের জন্য ঘৃতকুমারী - Aloe vera for healthy gums and teeth in Bengali

আমরা প্রত্যেকেই চাই আমাদের স্বাস্থ্যকর মাড়ি এবং দাঁত থাকুক, কারণ উজ্জ্বল, স্বাস্থ্যকর ত্বকের মত মুখের স্বাস্থ্যও একইরকম গুরুত্বপূর্ণ। ক্রমাগত আন্টিবায়োটিক প্রতিরোধী রোগ বেড়ে যাওয়ায় মুখের স্বাস্থ্যরক্ষার জন্য একটি প্রাকৃতিক বিকল্প প্রয়োজন হয়ে পড়েছে। আয়ুর্বেদের সাম্প্রতিক উন্নতির পর জানা যাচ্ছে, দাঁতের প্লাক এবং জিনজিভাইটিস রোধে ঘৃতকুমারী জেল খুব কার্যকরী এবং তার কোনও পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নেই। মুখের সমস্যার জন্য যে ব্যাক্টিরিয়াগুলি দায়ী সেগুলিকে এটি ধ্বংস করে। এছাড়া দেখা গিয়েছে, অ্যালো জেল-এর ব্যবহার মুখের আলসার কার্যকরী এবং দ্রুত নিরাময়ে সাহায্য করে।     

ঘৃতকুমারী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টিব্যক্টিরিয়াল - Aloe vera as an antioxidant and antibacterial in Bengali

একটি সাম্প্রতিক সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে অ্যালো ভেরার মধ্যে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টিব্যক্টিরিয়াল উপাদান আছে যা ত্বকের ব্যক্টিরিয়া সংক্রমণ প্রতিরোধে সাহায্য করে। বরাবর এটি ব্রণ, খুসকি এবং ত্বকে অন্যান্য ব্যাক্টিরিয়া সংক্রমণের বিরুদ্ধে ব্যবহার করা হয়েছে, তবে এই বিষয়ে আরও গবেষণার প্রয়োজন আছে। কাজেই, যে কোনও ধরনের ত্বকের সমস্যায় ঘৃতকুমারী ব্যবহারের আগে আপনার আয়ুর্বেদ চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া জরুরি।

সমীক্ষায় আরও দেখা গিয়েছে যে অ্যালো ভেরার ফাইটোকেমিক্যাল উপাদান হৃদরোগ, ডায়বিটিস, এবং স্নায়বিক দুর্বলতাবৃদ্ধির উপসর্গ নিয়ন্ত্রণ অথবা উপশমে সাহায্য করে।    

ডায়বিটিসের জন্য ঘৃতকুমারী - Aloe vera for diabetes in Bengali

অ্যালো ভেরা জেল-এর অ্যান্টিবায়োটিক উপাদানের ওপর তন্নিষ্ঠ গবেষণা করা হয়েছে এবং তিনটি পৃথক সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, ঘৃতকুমারী জুস পান করে ডায়বিটিস রোগীদের মধ্যে উল্লেখযোগ্যভাবে রক্তে শর্করার মাত্রা কমেছে। তবে, নিয়মিত এবং কার্যকর চিকিৎসার জন্য এর ডোজ এবং নিরাপত্তা বিষয়ে অন্তিম পর্যায়ের গবেষণা চলছে।

 (আরও পড়ুন: ডায়বিটিস )

চুলের জন্য ঘৃতকুমারী - Aloe vera benefits for hair in Bengali

আর্দ্রতা বাড়ানোর জন্য অ্যালো ভেরার উপকারিতা শুধুমাত্র ত্বকের ক্ষেত্রেই সীমাবদ্ধ থাকে না, তা মাথার খুলি এবং চুলেরও উপকার করে। যখন এটিকে কন্ডিশনার হিসাবে ব্যাবহার করা হয় তখন এটি চুলের স্বাস্থ্য রক্ষায় সাহায্য করে এবং মাথার খুলির pH সমতা রক্ষা করে বলে চুল পড়া কমে এবং চুল ঘন করে। গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে, ঘৃতকুমারী থেকে বহুল পরিমাণে ভাইটামিন এবং এনজাইম পাওয়া যায়, যা চুলের বীজকোষ বা ফলিকল পুষ্ট করতে সাহায্য করে এবং চুলের দ্রুত বৃদ্ধি ঘটায়।    

অ্যান্টি-টিউমার এজেন্ট হিসাবে ঘৃতকুমারীর ব্যবহার - Aloe vera as an anti-tumor agent in Bengali

অ্যালো জেল এবং তার নির্যাসের শরীরের অ্যান্টি-টিউমরোজেনিক গুণাবলী আছে কিনা পরীক্ষা করতে একাধিক গবেষণায় দেখা গিয়েছে, তা ত্বকে লাগানো বা মুখ দিয়ে গ্রহণের ফলে টিউমরোজেনিক কোষের বৃদ্ধি হ্রাস পায়। এরকম একটি সমীক্ষায় দাবি করা হয়েছে, ঘৃতকুমারী উদ্ভিদের এই কেমোপ্রোটেক্টিভ গুণের কারণ ভাইটামিন এবং এনজাইম এবং সেলেনিয়াম ও জিংক আকরিকের মতো এটি একটি অ্যান্টিঅক্সিডেটিভ এজেন্ট। এ বিষয়ে এখনও বিশদে গবেষণার কাজ চলছে যাতে টিউমার প্রতিরোধে এই উদ্ভিদ আরও কার্যকর ভূমিকা নিতে পারে এবং ক্যান্সার চিকিৎসার ক্ষেত্রে একটি সস্তা বিকল্প হয়ে উঠতে পারে।     

কোলেস্টরেল কমাতে ঘৃতকুমারীর - Aloe vera for lowering cholesterol in Bengali

ঘৃতকুমারী জেল-এর ওপর বিস্তর গবেষণার পর জানা গিয়েছে, এটি শরীরে ‘‘খারাপ’’ বা লো ডেনসিটি কোলেস্টরেল (LDL) কমাতে এবং ‘‘ভাল’’ বা হাই ডেনসিটি কোলেস্টরেল  (HDL) বাড়াতে সাহায্য করে। খারাপ কোলেস্টরেল কমলে অ্যাথেরোস্ক্লেরোসিস-এর (ধমনীতে চর্বি জমে যাওয়া) মত রোগের ঝুঁকি কমে এবং হার্ট স্বাস্থ্যকর থাকে। তাছাড়া, LDL কোলেস্টরেল-এর মাত্রা কমলে শরীরের ওজন এমনিতেই কমে। নিউট্রিশনাল সায়েন্স অ্যান্ড ভাইটামিনোলজি পত্রিকায় প্রকাশিত গবেষণা পত্রে দেখা যাচ্ছে, অ্যালো জেল গ্রহণ করলে যক্কৃতে  কোলেস্টেরোল উৎপাদন 25-30%. কমে।

 (আরও পড়ুন- হাই কোলেস্টরেল ট্রিটমেন্ট)     

অ্যালো ভেরার ব্যবহার ব্যাপক কিন্তু তা বিশেষভাবে ত্বক এবং বাতের উপশমের জন্য বাবহার হয়।

ঘৃতকুমারী থেকে দুটি উল্লেখযোগ্য পদার্থ পাওয়া যায়:

  • জেল: পাতার অভ্যন্তরীণ অংশ থেকে একটি পরিষ্কার এবং গন্ধহীন পদার্থ মেলে।
  • ল্যাটেক্স বা রস (জুস): পাতার বাইরের অংশ থেকে একটি হলুদ বর্ণের পদার্থ পাওয়া যায়।

ল্যাটেক্স জোলাপ হিসাবে ব্যবহার হয় (দাস্ত পরিষ্কার করার ক্ষেত্রে), কাজেই তা নিয়মিত ব্যবহারের পরামর্শ দেওয়া হয় না, তবে জেল পদার্থটি ঘন ঘন খাওয়া যেতে পারে, এবং ত্বক এবং স্বাস্থ্যের উপকার পাতার এই অংশ থেকেই হয়ে থাকে।  

পাতার মধ্যে একটি ছিদ্র করে উদ্ভিদ থেকে সরাসরি জেল বার করা যেতে পারে। তবে কাঁচা ল্যাটেক্স বা উদ্ভিদের সম্পূর্ণ পাতা শরীরের পক্ষে ক্ষতিকারক হতে পারে বলে তা না খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়ে থাকে।

নির্বীজিত বা (প্যাস্চুরাইজড) ঘৃতকুমারী জেল বা রস বাজারে পাওয়া যায় (যদি আপনি প্যাস্চুরাইজড জেল পেতে আগ্রহী হন, তাহলে উপযুক্ত কাজ হবে লেবেলের ওপর ‘‘ফ্ল্যাশ প্যাস্চুরাইজড’’ কথাটি দেখে নেওয়া, কারণ এভাবে প্যাস্চুরাইজেশন করা হলে তার ভেষজগুণ অক্ষুণ্ণ থাকে)।

জেল বা রস হিসাবে ব্যবহার ছাড়া পানীয় এবং প্রসাধনী শিল্পেও এর ব্যবহার হয়। বাণিজ্যিকভাবে এর ব্যবহার হয় মিল্ক (দুধ), চা, ক্রিম, কনফেকশনারি, পাউডার (আইসক্রিম, ইয়োগার্ট, লস্যি প্রস্তুত করার কাজে) ফেস ওয়াশ, লোশন এবং বিভিন্ন ত্বকের পণ্য হিসাবে। অ্যালো ভেরার সফ্‌ট জেল ক্যাপসুল মুখ দিয়ে খাবার জন্য এবং ত্বকে ব্যবহারের জন্য বাজারে মেলে।   

আপনি কি জানেন যে ঘৃতকুমারী বাতাস পরিশ্রুত করার কাজেও ব্যবহার হয়? নাসার একটি সমীক্ষা অনুসারে, এটি একটি অন্যতম উদ্ভিদ যা বাতাস দূষণমুক্ত রাখতে এবং এলাকায় অক্সিজেন সরবরাহ বাড়াতে সাহায্য করে।

বাড়িতে ঘৃতকুমারী বসানো

অ্যালো ভেরা হচ্ছে একটি শক্তসমর্থ উদ্ভিদ, (প্রতিকূল পরিবেশের সঙ্গে খাপ খাওয়াতে পারে) এবং বিশেষ যত্ন ছাড়াই ঘরের ভিতরে এবং বাইরে (বাইরে তরতর করে বাড়ে, ভিতরে অপেক্ষাকৃত ধীরে বড় হয়) বেড়ে উঠতে পারে, যদি অতিরিক্ত জল ঠিক মত বার করে দেওয়ার ব্যবস্থা থাকে। গ্রীষ্মপ্রধান বা উষ্ণ এলাকায় (ট্রপিক্যাল, সাব-ট্রপিক্যাল) 12-27 ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড তাপমাত্রায় বাড়তে পারে।

যদি আপনি শীতপ্রধান এলাকায় থাকেন তাহলে দিনের বেলায় এটিকে বাড়ির বাইরে, রোদ্দুরের তলায় এবং সন্ধ্যায় বাড়ির ভিতরে রাখুন।

পাতার অংশ থেকে বা উদ্ভিদের প্রশাখা থেকে অ্যালো ভেরা জন্মাতে পারে (ছোট চারা বড় উদ্ভিদের পাশে আপনা থেকেই জন্মায়)। বাগানের মালিরা বলেন, প্রশাখা থেকে ঘৃতকুমারী জন্মানো ভাল কারণ পাতা কেটে তা থেকে অ্যালো ভেরা রোপন একটি জটিল কাজ।    

রোপন:

  • প্রশাখা বা উপাঙ্গের তলায় মাটি পরিষ্কার করে দেখুন মূল কোথায় আছে।
  • একটি ছুরি দিয়ে ছোট উদ্ভিদের চারাটি (প্রশাখা) মূল উদ্ভিদ থেকে আলাদা করে দিন, অবশ্যই তাতে যেন মূল বা শিকড় থাকে।
  • জল ভাল করে বার করে দিয়ে মাটির মধ্যে নতুন চারাটি নতুন একটি পাত্রে বসান।

জল নিষ্কাশন অ্যালো উদ্ভিদের জন্য ভীষণ প্রয়োজনীয়, যদিও এই উদ্ভিদের চারা বসানো এবং তাকে বড় করা সহজ কাজ, তবে উপযুক্ত নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকলে উদ্ভিদ মারা যেতে পারে।

কী করে অ্যালো জেল বাড়িতে প্রস্তুত করবেন?

আশার কথা, বাড়িতে খুব সহজ ভাবেই অ্যালো জেল প্রস্তুত করা যায়। যদি নিজের জন্য অ্যালো জেল পেতে পান, তাহলে একটি পাতা গাছ থেকে কেটে নিয়ে কাটা অংশটি নিচের দিকে করে একটি পাত্রে রাখুন। পাতাটি থেকে হলুদ তরল গড়িয়ে বার হবে। সমস্ত রস বার হয়ে গেলে পাতাটি ধুয়ে নিন। পাতার ওপরের অংশটি একটি ছুরি দিয়ে কেটে নিন এবং পাতার বাইরের ত্বকটি ছাড়িয়ে নিন। যখন ওপরের স্তরটি ছাড়িয়ে নেবেন তখন পরিষ্কার, স্বচ্ছ জেল পাবেন। আপনি এটি সরাসরি ব্যবহার করতে পারেন বা ভবিষ্যতে বাবহারের জন্য ফ্রিজারে রেখে দিতে পারেন।

  • অ্যালো ট্যালেক্স নিয়মিত গ্রহণ করলে আন্ত্রিকের (গ্যাস্ট্রোইন্টেস্টিনাল) সমস্যা দেখা দেওয়ার উদাহরণ আছে
  • কিছু মানুষের অ্যালো ভেরা সহ্য হয় না, কাজেই যে কোনও রূপে ঘৃতকুমারী ব্যবহারের আগে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া খুব জরুরি।
  • 12  বছরের কোনও শিশুর মুখে অ্যালো জেল দেওয়া উচিত নয়, তার ফলে পেটের সমস্যা এবং ডায়রিয়া দেখা দিতে পারে।
  • প্রসূতিদের পক্ষে নিরাপদ বলে ধরে নেওয়া হয় না, কারণ কয়েকটি ক্ষেত্রে অসময়ে গর্ভপাতের ঘটনা জানা গিয়েছে।
  • সূর্যের তাপে বেরনোর ঠিক আগে ঘৃতকুমারী না লাগানোই শ্রেয়, তাতে রোদে পুড়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটতে পারে।
  • আপনি যদি ইতিমধ্যে কোনও কারণে চিকিৎসাধীন থাকেন তাহলে আপনার খাদ্যাভ্যাসে ঘৃতকুমারী যুক্ত করার আগে রেজিস্ট্রিকৃত চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করুন, কারণ এটি আপনার ওষুধের বিক্রিয়া ব্যাহত করতে পারে ।   
Medicine NamePack SizePrice (Rs.)
Himalaya Anti Dandruff ShampooHimalaya Anti Dandruff Shampoo56.0
Himalaya Dryness Defense Protein ShampooHimalaya Dryness Defense Protein Shampoo176.0
Himalaya Gentle Daily Care Protein ConditionerHimalaya Gentle Daily Care Protein Conditioner104.0
और पढ़ें ...

References

  1. Amar Surjushe, Resham Vasani, and D G Saple. ALOE VERA: A SHORT REVIEW. Indian J Dermatol. 2008; 53(4): 163–166. PMID: 19882025
  2. Kulveer Singh Ahlawat and Bhupender Singh Khatkar. Processing, food applications and safety of aloe vera products: a review. J Food Sci Technol. 2011 Oct; 48(5): 525–533. PMID: 23572784
  3. Visuthikosol V et al. Effect of aloe vera gel to healing of burn wound a clinical and histologic study.. J Med Assoc Thai. 1995 Aug;78(8):403-9. PMID: 7561562
  4. Vinay K. Gupta, Seema Malhotra. Pharmacological attribute of Aloe vera: Revalidation through experimental and clinical studies. Ayu. 2012 Apr-Jun; 33(2): 193–196. PMID: 23559789
  5. Langmead L1, Makins RJ, Rampton DS. Anti-inflammatory effects of aloe vera gel in human colorectal mucosa in vitro. Aliment Pharmacol Ther. 2004 Mar 1;19(5):521-7. PMID: 14987320
  6. Soyun Cho et al. Dietary Aloe Vera Supplementation Improves Facial Wrinkles and Elasticity and It Increases the Type I Procollagen Gene Expression in Human Skin in vivo. Ann Dermatol. 2009 Feb; 21(1): 6–11. PMID: 20548848
  7. Fatemeh Nejatzadeh-Barandozi. Antibacterial activities and antioxidant capacity of Aloe vera. Org Med Chem Lett. 2013; 3: 5. PMID: 23870710
  8. Rajendra Kumar Gupta et al. Preliminary Antiplaque Efficacy of Aloe Vera Mouthwash on 4 Day Plaque Re-Growth Model: Randomized Control Trial. Ethiop J Health Sci. 2014 Apr; 24(2): 139–144. PMID: 24795515
  9. G Sujatha, G Senthil Kumar, J Muruganandan, T Srinivasa Prasad. Aloe Vera in Dentistry. J Clin Diagn Res. 2014 Oct; 8(10): ZI01–ZI02. PMID: 25478478
  10. Neda Babaee, Ebrahim Zabihi, Saman Mohseni, Ali Akbar Moghadamnia. Evaluation of the therapeutic effects of Aloe vera gel on minor recurrent aphthous stomatitis. Dent Res J (Isfahan). 2012 Jul-Aug; 9(4): 381–385. PMID: 23162576
  11. Yongchaiyudha S1, Rungpitarangsi V, Bunyapraphatsara N, Chokechaijaroenporn O. Antidiabetic activity of Aloe vera L. juice. I. Clinical trial in new cases of diabetes mellitus.. Phytomedicine. 1996 Nov;3(3):241-3. PMID: 23195077
  12. Ghannam N, Kingston M, Al-Meshaal IA, Tariq M, Parman NS, Woodhouse N. The antidiabetic activity of aloes: preliminary clinical and experimental observations.. Horm Res. 1986;24(4):288-94. PMID: 3096865
  13. El-Shemy HA1, Aboul-Soud MA, Nassr-Allah AA, Aboul-Enein KM, Kabash A, Yagi A. Antitumor properties and modulation of antioxidant enzymes' activity by Aloe vera leaf active principles isolated via supercritical carbon dioxide extraction. Curr Med Chem. 2010;17(2):129-38. PMID: 19941474
  14. Saini M1, Goyal PK, Chaudhary G. Anti-tumor activity of Aloe vera against DMBA/croton oil-induced skin papillomagenesis in Swiss albino mice.. J Environ Pathol Toxicol Oncol. 2010;29(2):127-35. PMID: 20932247
ऐप पर पढ़ें