myUpchar प्लस+ सदस्य बनें और करें पूरे परिवार के स्वास्थ्य खर्च पर भारी बचत,केवल Rs 99 में -

মায়োকার্ডিটিস কি?

হৃদযন্ত্রের পেশীতে প্রদাহ, যা মায়োকার্ডিয়াম নামে পরিচিত, এটিকেই মায়োকার্ডিটিস বলা হয়। অন্যান্য হৃদরোগগুলির মতো, জীবনশৈলী এই রোগ সৃষ্টির ক্ষেত্রে কোন ভূমিকা পালন করে না। মায়োকার্ডিটিসকে প্রতিরোধ করার মতো কোন পদ্ধতি এখনও উপলব্ধ হয়নি। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে,মায়োকার্ডিটিসে আক্রান্ত ব্যাক্তিরা কোন জটিলতা ছাড়াই আরোগ্যলাভ করে, তবে কিছু বিরলক্ষেত্রে, হৃদযন্ত্র ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তবে, এটি ঘটে কেবলমাত্র গুরুতর প্রদাহজনক ক্ষেত্রে।

এর প্রধান লক্ষন ও উপসর্গগুলি কি কি?

নিম্নলিখিত উপসর্গগুলি দেখা দিতে পারে সংক্রমণের এক থেকে দুই সপ্তাহ পরে:

  • ব্যায়াম ও পরিশ্রমের সময় নিশ্বাস নিতে অসুবিধা
  • বুকে চাপ ও তীব্র ব্যাথার অনুভূতি যা পরে সারা শরীরে ছড়িয়ে পড়ে।
  • বিশ্রামের সময় নিশ্বাস নিতে অসুবিধা।
  • হৃদপিণ্ডের অনিয়মিত স্পন্দন (আরও পড়ুন: ট্যাকিকার্ডিয়ার কারণ)।
  • পায়ে ফোলাভাব।
  • ফ্লুয়ের-মতো উপসর্গ, যেমন, অবসাদ, ক্লান্তিভাব ও শরীরে উচ্চ তাপমাত্রা।
  • হঠাৎ চেতনা হ্রাস পাওয়া।

এর প্রধান কারণগুলি কি কি?

যদিও অনেকসময় মায়োকার্ডিটিসের কারণ অজানা থাকতে পারে,তবুও পরিচিত কারণগুলি হল:

  • সাধারন কারণগুলি: ভাইরাস,যেমন, যেসকল ভাইরাস উচ্চ শ্বাসনালীর সংক্রমণের জন্য দায়ী থাকে।
  • যে কারণগুলি কম দেখা যায়: লাইম রোগের মতো সংক্রামক রোগ।
  • বিরল কারণগুলি: কোকেইনের ব্যবহার, বিষাক্ত পদার্থের সংস্পর্শে আসা যেমন সাপের কামড়, মাকড়শার কামড় ও ধাতব বিষ।

কিভাবে এটি নির্ণয় করা হয় ও এর চিকিৎসা কি?

বেশিরভাগ ক্ষেত্রে, মায়োকার্ডিটিস কোন উপসর্গ সৃষ্টি করে না এবং এটি অনির্ণীত থেকে যায়। যাইহোক যদি একজন ব্যক্তি মায়োকার্ডিটিসের উপসর্গ অনুভব করেন, তাহলে নিম্নোক্ত নির্ণয়বিধি গ্রহন করা হয়:

  • ইলেক্ট্রোকার্ডিওগ্রামঃ হৃদপিণ্ডের তরঙ্গজনিত কার্যকলাপ পরীক্ষা।
  • ইকোকার্ডিওগ্রাম: হৃদপিণ্ডের ইমেজ বা প্রতিবিম্ব প্রস্তুত করা হয় এবং রক্ত চলাচল পরীক্ষা করা হয়।
  • বুকের এক্স-রে: হৃদপিণ্ডের ও ফুসফুসের গঠন পরীক্ষা করে দেখা যে কোন গঠনগত তারতম্য আছে কিনা।
  • কার্ডিয়াক ম্যাগনেটিক রেজোনেন্স ইমেজিং (এমআরআই): হৃদপিণ্ডের ইমেজ বা প্রতিবিম্ব পরীক্ষা।
  • হদপিণ্ডের বায়োপসি: নির্ণয় নিশ্চিত করার জন্য মাঝে মাঝে এটি সম্পাদন করা হয়।

নিম্নোক্ত চিকিৎসা পদ্ধতিগুলি সাধারণত প্রয়োগ করা হয় মায়োকার্ডিটিসে।

  • হার্ট ফেলিওর বা হৃদস্পন্দন বন্ধ হওয়ার চিকিৎসা করতে ওষুধের ব্যবহার।
  • স্বল্প-নুনযুক্ত খাদ্য গ্রহণ।
  • বিশ্রাম নেওয়া।
  • প্রদাহ কমাতে স্টেরয়েডের ব্যবহার।
  • মায়োকার্ডিটিসে আক্রান্ত ব্যক্তির মানসিক সহযোগিতার জন্য কাউন্সেলিং করানো জরুরী।
  1. মায়োকার্ডাইটিস জন্য ঔষধ

মায়োকার্ডাইটিস জন্য ঔষধ

মায়োকার্ডাইটিস के लिए बहुत दवाइयां उपलब्ध हैं। नीचे यह सारी दवाइयां दी गयी हैं। लेकिन ध्यान रहे कि डॉक्टर से सलाह किये बिना आप कृपया कोई भी दवाई न लें। बिना डॉक्टर की सलाह से दवाई लेने से आपकी सेहत को गंभीर नुक्सान हो सकता है।

Medicine Name
Dilzem खरीदें
Dilgel खरीदें
Diltgesic Organo खरीदें
Diltigesic Organo खरीदें
SBL Dibonil Drops खरीदें
ADEL 43 खरीदें
ADEL Crataegus Dilution खरीदें
Dr. Reckeweg Crataegus Oxy Q खरीदें
Schwabe Crataegus Pentarkan खरीदें
ADEL 6 खरीदें
SBL Tonicard Gold Drops खरीदें
Neo Card N Drops खरीदें
Schwabe Angioton खरीदें
Angizem Cd खरीदें
Angizem Dp खरीदें
Angizem खरीदें
Channel खरीदें
Dilcardia खरीदें
Dilcontin खरीदें
Dtm खरीदें
Dz Cd खरीदें
Iski खरीदें
और पढ़ें ...
ऐप पर पढ़ें