myUpchar प्लस+ सदस्य बनें और करें पूरे परिवार के स्वास्थ्य खर्च पर भारी बचत,केवल Rs 99 में -

সারাংশ

যখন পেট পরিষ্কার হয় না বা অনিয়মিতভাবে হয় তখন স্বাভাবিকভাবেই কোষ্ঠকাঠিন্য হয়। এর পিছনে একাধিক কারণ থাকতে পারে, যেমন সুষম খাদ্যতালিকা (ডায়েট), রোগীর চিকিৎসার ইতিহাস, বা অন্য কোনও শারীরিক সমস্যা। কোনও কোনও সময়ে কিছু ওষুধের কারণেও এটি হতে পারে। চিকিৎসকেরা মনে করেন এটি কোনও রোগ নয়, কিন্তু অভ্যন্তরের পাচনতন্ত্রে সমস্যার আভাস। কোষ্ঠকাঠিন্যের অন্যান্য কারণের মধ্যে আছে অন্ত্র বাধাপ্রাপ্ত হওয়া, শ্রোণির দুর্বল পেশিসমূহ, খাদ্যে তন্তুর অভাব, বা শরীরে জলের অভাব।

জোলাপ জাতীয় ওষুধ সরাসরি দোকান থেকে কেনা যেতে পারে যার সাহায্যে কার্যকরীভাবে কোষ্ঠকাঠিন্যের মোকাবিলা করা যায়। যদিও এই ওষুধগুলিতে তাৎক্ষণিক উপশম হয় এগুলি নিয়মিত ব্যবহার করা হয় না। কিছু ঘরোয়া ওষুধ এই সমস্যা সমাধানে কাজে লাগতে পারে। দীর্ঘস্থায়ী কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে শারীরিক সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে এবং তার মূল কারণ সন্ধানের জন্য চিকিৎসকের পরামর্শে বিভিন্ন পরীক্ষা করাতে হতে পারে। কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে মুক্তির জন্য খাদ্যতালিকায় পরিবর্তন আনলে সাহায্য হতে পারে। চিকিৎসা না করা হলে কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে জটিলতার সৃষ্টি হতে পারে।

  1. কোষ্ঠকাঠিন্য (কোষ্ঠবদ্ধতা) এর উপসর্গ - Symptoms of Constipation in Bengali
  2. কোষ্ঠকাঠিন্য (কোষ্ঠবদ্ধতা) এর চিকিৎসা - Treatment of Constipation in Bengali
  3. কোষ্ঠকাঠিন্য জন্য ঔষধ
  4. কোষ্ঠকাঠিন্য ৰ ডক্তৰ

কোষ্ঠকাঠিন্য (কোষ্ঠবদ্ধতা) এর উপসর্গ - Symptoms of Constipation in Bengali

কোষ্ঠকাঠিন্যের উপসর্গ সহজেই চিহ্নিত করা যায় এবং তার মধ্যে থাকে:

  • স্বাভাবিক পেট পরিষ্কার না হওয়া।
  • সম্পূর্ণ পেট পরিষ্কার না হওয়ার অনুভূতি।
  • মলত্যাগের সময় অসুবিধা অথবা যন্ত্রণা।
  • মল শক্ত হওয়া বা এঁটে যাওয়া।

কয়েক ঘণ্টার মধ্যে এই উপসর্গগুলির উপশম হওয়া প্রয়োজন, না হলে তা দীর্ঘস্থায়ী হয়ে যাবে। যদি কোনও ব্যক্তির নিম্নলিখিত উপসর্গগুলি দেখা যায় তাহলে তাঁর অবশ্যই অবিলম্বে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত:

কোষ্ঠকাঠিন্য (কোষ্ঠবদ্ধতা) এর চিকিৎসা - Treatment of Constipation in Bengali

অবিলম্বে স্বস্তির জন্য আপনার চিকিৎসক হয়তো জোলাপ সুপারিশ করতে পারেন। এই জোলাপ মাঝে মাঝে কোষ্ঠকাঠিন্যের চিকিৎসার জন্য সাহায্য করতে পারে কিন্তু কখনই অসুখের প্রকৃত কারণ নির্ণয় করে নিরাময় করে না। বেশি পরিমাণে জোলাপ ব্যবহার করলে বহু পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দেয় এবং দীর্ঘ ব্যবহারে ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে।

যাঁরা কোষ্ঠকাঠিন্যে ভুগছেন তাঁরা খুব স্বাভাবিকভাবেই বেশি পরিমাণে জোলাপ ব্যবহার করেন, যা থেকে বিভিন্ন প্রকারের স্বাস্থ্য সমস্যা দেখা দিতে পারে। যাঁদের পেটের সমস্যা আছে তাঁরা একটানা জোলাপ খেয়ে গেলে তার ফল খুবই ক্ষতিকর হতে পারে এবং পরিপাক তন্ত্রের আবরণ ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। কাজেই স্বস্তির উদ্দেশে ওষুধের দোকান থেকে সরাসরি জোলাপ কিনলে তা সতর্কতার সঙ্গে ব্যবহার করা উচিত।

যদি জোলাপ খাওয়ার পর কোনও ব্যক্তির নিম্নলিখিত উপসর্গ দেখা দেয় তাহলে অবিলম্বে একজন চিকিৎসকের সঙ্গে যোগাযোগ করা উচিত:

  • মলত্যাগের সময়.রক্তপাত।
  • নাক থেকে রক্তক্ষরণ।
  • পেটের ব্যাথা
  • বমিভাব
  • পেট পরিষ্কারে পরিবর্তন।
  • দুর্বলতা।  .

কোষ্ঠকাঠিন্যের চিকিৎসার জন্য ওষুধের দোকানে একাধিক রকমের জোলাপ পাওয়া যায়। মুখ দিয়ে বা ওরাল অসমটিক এজেন্ট গ্রহণ করলে কোলনে জল প্রবেশ করায় মলত্যাগে সুবিধা হয়। ওরাল বাল্ক ফর্মার বিপরীতভাবে কাজ করে অর্থাৎ জল শুঁষে নেয় বলে মলে জলীয়ভাব কমে যাওয়ায় ঠিকঠাক নির্গত হয়। অন্যান্য জোলাপের মধ্যে আছে ওরাল স্টুল সফেনার এবং ওরাল স্টিমুল্যান্ট।

মুখ দিয়ে যে জোলাপ গ্রহণ করা হয় তা শারীরবৃত্তীয় কার্যকলাপকে প্রভাবিত করায় কিছু পুষ্টি এবং ওষুধ শরীরে মিশতে পারে না। কিছু জোলাপ ইলেক্ট্রোলাইট ভারসাম্য বিঘ্নিত করে। এই জোলাপ গ্রহণের আগে ওপরের লেবেল পড়ে নিম্নলিখিত বিষয়গুলি পরীক্ষা করে নেওয়া উচিত:

  • পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া কী।
  • ওষুধের প্রতিক্রিয়া।
  • স্বাস্থ্য পরিস্থিতি কেমন, ডায়বিটিস, কিডনির সমস্যা আছে কিনা, বা অন্তঃসত্ত্বা কিনা। 
  • চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া ছয় বছরের নিচে কোনও শিশুকে কখনও জোলাপ দেওয়া উচিত নয়।
  • চিকিৎসকেরা সুপারিশ করেন, খাদ্যাভ্যাস এবং খাদ্য তালিকার দিকে নজর রাখতে হবে এবং সেই সঙ্গে কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যাকে দূরে রাখতে হবে।যদি কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা গভীর হয় এবং সময়ের সঙ্গে খারাপ হয়, তাহলে চিকিৎসক পষথক ওষুধ নেওয়ার পরামর্শ দিতে পারেন। যদি কোথাও কোনও বাধার সৃষ্টি হয়ে থাকে তাহলে চিকিৎসক অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে নিরাময়ের সুপারিশ করতে পারেন।

ঘরোয়া  প্রতিকার

কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে মুক্তি পেতে ঘরোয়া প্রতিকার সাহায্য করতে পারে। কিছু সহজ প্রতিকার নিচে বিবৃত হল:

  • হিং
    এক গ্লাস উষ্ণ জলে দু’চিমটে হিং ফেলে দিন এবং দিনে দু’বার খান।
  • জোয়ান
    এক চা চামচ জোয়ান প্যানের মধ্যে শুকনো ভেজে নিন এবং তারপর সেগুলিকে গুঁড়িয়ে নিন। উষ্ণ জলের সাহায্যে গিলে নিন।
  • জল
    যদি মাঝে মাঝে আপনি কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যায় ভুগতে থাকেন তাহলে দিনের শুরু করুন এক গ্লাস উষ্ণ জল দিয়ে যা আপনার পেট পরিষ্কার রাখতে সাহায্য করবে। প্রতিদিন সকালে খালি পেটে ওই জল খেয়ে নিন। দিনভর নির্দিষ্ট সময় অন্তর জল খান যাতে শরীর জলশুন্য না হয়ে যায়।
  • কফি
    ক্যাফিন হচ্ছে একটি সাধারণ জোলাপ এবং অত্যন্ত মৃদু প্রকৃতির। এক কাপ কালো কফি তৈরি করে নিন এবং সকালে খান। তবে এ ব্যাপারে সতর্ক করা হয় যে, কেউ যেন এই প্রতিকারের ওপর নির্ভরশীল না হয়ে পড়েন, কারণ ক্যাফিন থেকে ডিহাইড্রেশন হতে পারে ( জলশূন্যতা) এবং রাত্রে কফি খেলে ঘুমের ব্যাঘাত ঘটতে পারে।

লাইফস্টাইল (জীবনশৈলী) ম্যানেজমেন্ট

খাদ্যতালিকা

  • কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে দীর্ঘস্থায়ী মুক্তি পেতে হলে প্রথম এবং সর্বাগ্রে খাদ্যতালিকার দিকে নজর রাখতে হবে। এ বিষয়ে খাদ্যতালিকার বিশেষ ভূমিকা আছে। কোষ্ঠকাঠিন্য রোধ করতে গেলে খাদ্যতালিকায় তন্তুজাতীয় (ফাইবার) খাবার রাখতে হবে। প্রচুর জলের সঙ্গে তন্তুসমৃদ্ধ খাদ্য অনেক স্বস্তিদায়ক হয়।
  • একজন প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তির প্রতিদিন 25 গ্রাম তন্তুসমৃদ্ধ খাদ্যের প্রয়োজন। তন্তুর প্রধান উৎসের মধ্যে আছে শস্যদানা, যেমন বাদামী পাঁউরুটি, ওট, এবং সিরিয়াল। বিভিন্ন শুঁটি যেমন শিম এবং সয়াবিন হচ্ছে তন্তুসমৃদ্ধ খাদ্য। সবুজ, পাতাওয়ালা সবজি থেকে শুধু তন্তু মেলে না, কিন্তু তার প্রয়োজনীয় পুষ্টিগুণ আছে। তন্তুজনিত পদার্থ যুক্ত থাকার কারণে স্নেহপদার্থ থাকার জন্য বাদাম, যেমন কাঠবাদাম, এবং চিনাবাদাম খাওয়া যেতে পারে।
  • পাচনতন্ত্র উপযুক্তভাবে কাজ করার জন্য প্রতিদিন প্রচুর জল খাওয়া প্রয়োজন। জল মল নরম রাখতে সাহায্য করে এবং মলত্যাগে সুবিধা হয়। কেউ কেউ অন্য পানীয়, যেমন ফলের রসও খেতে পারেন।
  • উত্তম ব্যাকটিরিয়া বা প্রোবায়োটিক সমৃদ্ধ খাদ্য হজম করতে সাহায্য করে এবং দীর্ঘস্থায়ী সুফল আছে।
  • খাদ্য সংক্রান্ত  কোষ্ঠকাঠিন্য রদ করতে প্রক্রিয়াজাত খাদ্য, বাতান্বিত জল, এবং হিমায়িত খাদ্য খাওয়া উচিত নয়।

ব্যায়াম

নিয়মিত শারীরিক কসরতের সাহায্যে হজমশক্তি বাড়ে, এবং পেটের পেশিদের উত্তেজক করে। চিকিৎসক কিছু প্রশিক্ষণ দিতে পারেন যাতে একটি নিয়মিত শৃঙ্খলা রক্ষা হয় এবং কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

ওষুধ

আপনি যদি কোনও ওষুধ বা সে জাতীয় কিছু সাপ্লিমেন্ট নেন, তাহলে ওগুলির জন্য কোষ্ঠকাঠিন্য হচ্ছে কিনা সে ব্যাপারে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। যদি তাই হয় তাহলে আপনি বিকল্প ওষুধের কথা চিকিৎসকের কাছে জেনে নিন।

Dr.Priyanka Trimukhe

Dr.Priyanka Trimukhe

सामान्य चिकित्सा

Dr. Nisarg Trivedi

Dr. Nisarg Trivedi

सामान्य चिकित्सा

Dr MD SHAMIM REYAZ

Dr MD SHAMIM REYAZ

सामान्य चिकित्सा

কোষ্ঠকাঠিন্য की जांच का लैब टेस्ट करवाएं

LFT ( Liver Function Test )

25% छूट + 5% कैशबैक

Thyroid Stimulating Hormone (TSH)

25% छूट + 5% कैशबैक

কোষ্ঠকাঠিন্য জন্য ঔষধ

কোষ্ঠকাঠিন্য के लिए बहुत दवाइयां उपलब्ध हैं। नीचे यह सारी दवाइयां दी गयी हैं। लेकिन ध्यान रहे कि डॉक्टर से सलाह किये बिना आप कृपया कोई भी दवाई न लें। बिना डॉक्टर की सलाह से दवाई लेने से आपकी सेहत को गंभीर नुक्सान हो सकता है।

Medicine Name
Gelusil Mps खरीदें
Digene खरीदें
Duphalac खरीदें
Cremaffin खरीदें
Softdrops खरीदें
Freego खरीदें
Aristozyme खरीदें
Normalax खरीदें
ADEL 28 खरीदें
Novalax खरीदें
Oslax खरीदें
SBL Arnica Montana Hair Oil खरीदें
Schwabe Sabal Pentarkan खरीदें
Piclin खरीदें
Arnica Montana Herbal Shampoo खरीदें
Picolax(Sp Pharma) खरीदें

References

  1. National Institute of Diabetes and Digestive and Kidney Diseases [internet]: US Department of Health and Human Services; Constipation .
  2. Stanford Health Care [Internet]. Stanford Medicine, Stanford University; Constipation Causes
  3. National Health Service [Internet]. UK; Laxatives.
  4. Better health channel. Department of Health and Human Services [internet]. State government of Victoria; Constipation
  5. Stanford Health Care [Internet]. Stanford Medicine, Stanford University; Complications of Constipation
और पढ़ें ...
ऐप पर पढ़ें